এস.এস.বি. ভলেন্টিয়ার্রসদের দাবী সমাধানের পথে – সমীর রঞ্জন

দেশ ও এইসময় ডেক্সঃ এস,এস,বি (SSB) রাষ্ট্রীয় মহাসচিব সমীর রঞ্জন শীল তার বক্তব্য জানান

আগামী ১০ ডিসেম্বর ২০১৮ আমদের সুপ্রিম কোর্ট কেসের পরবর্তী শুনানি।কতিপয় অসাধু এস.এস.বি. ভলেন্টিয়ার্রস নিজেদের লিডার বলে বিভিন্ন অসদাচরণ করছে। আমার ওপরে উল্লিখিত কেস নম্বরটি তাদের বলে অসদ ভাবে সরল ভলেন্টিয়ারদের ঠকাচ্ছে।বলছে এটা আমার কেস নয়, এই কেসের সাথে নাকি তারা যুক্ত। সত্যতা বিচার করে তবেই সাথ দেবেন, মুখের কথায় নয়। প্রয়োজনে কোনো অভিজ্ঞ উকিল এর পরামর্শ নিন ।আমি কিছু নাম নীচে উল্লেখ করে দিচ্ছি যারা পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় আমার সাথে এই কেস এ যুক্ত । বাকি যাদের নাম এখানে উল্লেখ থাকবে না তাদের সাথে যুক্ত ভাই বোনেদের দয়িত্ব তাদের ওপর থাকবে । শুনতে পাচ্ছি ১০ ডিসেম্বর নাকি সব ফাইনাল হযে যাচ্ছে । আবারো শুনছি মাননীয় গৃহমন্ত্রি শ্রী রাজনাথ সিং নাকি সব করে দিয়েছেন আর একটা মিটিং করলেই কেল্লা ফতে ।

আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাতে চাই..
1) 10 ডিসেম্বর কোনো ফাইনাল হচ্ছে না । কোর্টের কিছু নিয়মাবলি থাকে । সেই অনুযায়ী কেস এখন রেজিস্টার এর অধীন । 10 তারিখে কেস রেজিস্টার থেকে জজ এর অধীনে যাবে । জজ 6 সপ্তাহের একটা সময় দেবেন আমদের rejoinder submit করার জন্য । rejoinder submit হবার পর argument শুরু হবে এবং একটা সুষ্ঠ সমাধান এ আসবে ।এই হলো কোর্টের নিয়ম ।2) যখন কোনো সমস্যা কোর্টের অধীন থাকে তখন সেটা কোর্ট ই সমাধান করে ।
উদাহরণ : ধরে নিন কোনো সমস্যার কোর্টে মামলা হয়েছে । সেই সমস্যা কি কোনো পঞ্চায়েত বা পঞ্চায়েত প্রধান সালিস করতে রাজি হবেন ?আপনারা বুদ্ধিমান/ বুদ্ধিমতী.. সব বোঝেন.. সেই ভাবে কাজ করবেন ।শুনছি কোথাও নামের লিস্ট দেখানো হচ্ছে ।নামের লিস্ট নিয়ে M.H.A. ( গৃহমন্ত্রালয় ) ধন্ধে রয়েছে ।SSB ” on record ” শব্দ ব্যবহার করেছেন ।আপনারাও সেই দিন ( 2017 ) আমার সাথে ছিলেন Siliguri Frontier Head Quarter SSB Ranidanga তে যখন আমরা আন্দোলন এ বসে IG মুখ্য প্রবেশ দ্বারের সামনে ।

আমদের দাবী সমূহের মধ্যে দুটি দাবী ছিলো …
Verified name list as per 2015 physical verification.. নামের লিস্ট দিতে হবে । এই শর্তে ..

☆ Honourable D.G. SSB এর সঙ্গে একটি বৈঠক এর সুযোগ করে দিতে হবে । কিসের ভিত্তিতে এই নামের লিস্ট করা হয়েছে যেখানে প্রত্যেক রাজ্যে অর্ধেকেরও বেশি authentic volunteers দের নাম বাদ পরেছে ।” On Record ” কথার যৌক্তিকতা সম্বন্ধেও প্রশ্ন করার ছিলো কিন্তু Honourable IG/SLG/FTR/HQ/RDA.. সেদিন বলেছিলেন Honourable DG/SSB/DELHI দেশের বাইরে আছেন ।আমরা বলেছিলাম ..আমাদের কোনো তাড়াহুড়ো নেই.. আমরা এখানে বসে রইলাম .. যেদিন উনি দেশে আসবেন তারপর ওনার সময় মতো আমাদের বৈঠকের সুযোগ করে দেওয়া হোক । উত্তরে Honourable IG সাহেব বলেছিলেন যে DG সাহেবের সাথে কথা বলা যাবে না । যা বলার IG সাহেব কেই বলতে হবে ।তখন আমি সেই নামের লিস্ট নিতে অস্বীকার করি । তারপরও IGসাহেব ক্ষান্ত হন নি । বলেন যে আমি ভলান্টিয়ার দের প্রতিনিধি হয়ে একা একা ওনার সাথে কথা বলি। হয়তো ওনার কথা সঠিক ভাবে সবভলান্টিয়ারদের কাছে পৌছায় না ।
পরবর্তী কালে IG সাহেব আমার সাথে একা কথা বলতে অস্বীকার করেন । বলেন যা বলার ধর্না মঞ্চে উপস্থিত সব ভলান্টিয়ার্সদের সামনে বলবেন । এবং সেই মতো উপস্থিত ধর্না মঞ্চের সব ভলান্টিয়ার্সদের ডেকে সেই নামের লিস্ট দিতে চান । সেদিন ও সব ভলান্টিয়ার্সরা বলেছিলো আমরা সমীরদার সাথে একমত । DG /DELHI এর সাথে বৈঠক এর ব্যবস্থা করলে তবেই আমরা ওই নামের লিস্ট নেব অন্যথায় নয় । ওই ঘটনার সাক্ষী আপনারা অনেকেই ।তাহলে ওই রদ্দি কাগজের দাম কোথায় রইলো ?ধমক, হুমকিতে আমি অভ্যস্থ.. এসব তাবিজ কবজ দিয়ে আমায় বসে আনা যাবে না । এই কেস থেকে আমায় সরানোর অপপ্রচেস্ঠাও বিফল হবে ।এখনো বলছি যারা বলে SSB আমদের শত্রু .. তারা ভূল ব্যাক্ষা করে । SSB তার ক্ষমতা অনুযায়ী কাজ করছে এবং আমাদের যথেষ্ট সাহায্যও করে । থমকে গেলে আমরা বিভিন্ন সময়ে DG SSB/DELHI এর দারস্থ হই । এবং সেখানে সঠিক বুদ্ধি তারা দেন ।তবে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে ধর্না অবস্থান করেও যখন তাদের উদাসীন মনোভাব পরিলিক্ষত হয়েছে । তারপরই আমরা সুপ্রিম কোর্টের দারস্থ হই ।কেন্দ্রীয় সরকার এবং SSB এর কাছে আমার সবিনয় নিবেদন এই যে যাতে সুপ্রিম কোর্ট সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হতে পারে সেইমতো সহযোগিতা যেন সঠিক অর্থে সুপ্রিম কোর্টকে করা হয় ।

যে সব লিডাররা সঠিক অর্থে পশ্চিমবঙ্গে সুপ্রিম কোর্টের এই কেসের সাথে জড়িত তাদের নাম নিম্নরুপ –

উত্তর 24 পরগনা : রাজিব কান্তি রায় ( State president of West Bengal) , মানস চক্রবর্তী, অরূপ বিশ্বাস, রানা সিংহ ।

দক্ষিন 24 পরগনা : সুপ্রিয় সাঁতরা , দিনেশ মাইতি, নিতাই কৃষ্ণ গায়েন, হারুপদ নস্কর , রাজ মুখার্জি ।

নদিয়া : অশোক বিশ্বাস, নীলকমল আড্য , শংকর চক্রবর্তী ।

মুর্শিদাবাদ : প্রশান্ত প্রামানিক ।

মালদহ : জয়ন্ত মিশ্র , উত্তম কুমার মন্ডল ,ভরত মন্ডল ।

উত্তর দিনাজপুর : গনেশ মন্ডল ( State General Secretary of West Bengal) , উৎপল সরকার, তারিণী বসাক ।

দার্জিলিং : মনোরঞ্জন সরকার, গুরুপদ রায় ।

কোচবিহার : গৌর কিশোর দাস, বিভূতি রায়বর্মা ।

কালিম্পং : সত্য নারায়ণ প্রধান, ধীরাজ সুব্বা

বাকি যেসব জেলার নাম এখানে উল্লেখ নেই, সেই সব জেলায় কোনো সঠিক লিডার তৈরি হয় নি.. অন্য কোনো ভলান্টিয়ার যদি বলে তাদের কেস নম্বর 259. তারা মিথ্যে কথা বলছে । প্রয়োজনে আমায় ফোন করবেন ।

আমার নম্বর 9775441544।অবশেষে বলি এই সমস্যা শুধু শোষিত,নিপীড়িত,বঞ্চিত দেশভক্ত গেরিলাদের নয়.. এর সাথে দেশের সঠিক অর্থে ” সীমান্ত সুরক্ষাও ” ওতপ্রতভাবে জড়িত ।সকলে সুস্থ থাকুন .. ভালো থাকুন ।অশুভ শক্তি নিপাত যাক .. শুভ বুদ্ধির উদয় হোক ।সুরক্ষীত সীমান্ত ..খুশহাল দেশ ..জয় গেরিলা.. জয় হিন্দ” ।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *