রোহিঙ্গাদের টিকা দিচ্ছে বাংলাদেশ

বাংলাদেশে আছড়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। প্রত্যেকদিনই মিলছে নানা খবর। বিশেষ করে ভয় বাড়াচ্ছে ডেল্টা স্ট্রেন। তাই সংক্রমণ রুখতে এবার রোহিঙ্গাদের টিকাকরণ শুরু করল শেখ হাসিনা প্রশাসন। যা এককথায় মানবতার প্রতীক।
বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে কমপক্ষে ১১ লক্ষ রোহিঙ্গা শরণার্থী। কক্সবাজার ও সংলগ্ন এলাকার শরণার্থী শিবিরে তাদের আশ্রয় দিয়েছে শেখ হাসিনার সরকার। কিন্তু সেখানে দ্রুত ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার থেকে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শিবিরে টিকাদান শুরু করেছে বাংলাদেশ প্রশাসন। স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত অন্তত আড়াই হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু হয়েছে ২৯ জনের।
এই পরিসংখ্যান হিমশৈলের চূড়ামাত্র বলে অনেকে মনে করছেন। বাস্তবে শরণার্থী শিবিরগুলিতে ত্রাস হয়ে দেখা দিয়েছে কোভিড। বাংলাদেশের ডেপুটি রিফিউজি শামসউদ দোজা জানান, চলতি সপ্তাহেই ভাসানচরেও শরণার্থীদের টিকা দেওয়ার কাজ শুরু হবে। কক্সবাজারের মূল শরণার্থী ক্যাম্প থেকে সমুদ্রের মাঝে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরিত করছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার। বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত করোনার হামলায় মৃত্যু হয়েছে ২৩ হাজার মানুষের, আক্রান্ত অন্তত ১৪ লক্ষ।
উল্লেখ্য, কক্সবাজারে ৩৪টি ও নোয়াখালির ভাসানচরে ১টি-সহ ৩৫টি শরণার্থী শিবিরে ১১ লক্ষ রোহিঙ্গা শরণার্থী আশ্রয় নিয়েছে। তবে নোয়াখালি জেলার ভাসানচরে কোনও রোহিঙ্গার শরীরে এখনও করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়নি। কক্সবাজারের ৩৪টি রোহিঙ্গা শিবিরে মধ্যে উখিয়ার কুতুপালং ক্যাম্প-২ ডব্লিউ, কুতুপালং ক্যাম্প-৩, কুতুপালং ক্যাম্প-৪, জামতলি ক্যাম্প-১৫ ও টেকনাফের লেদা ক্যাম্প ২৪ শিবিরকে কঠোর লকডাউনের আওতায় আনা হয়েছে।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *