প্লাস্টিক দূষণ রুখতে সচেতনতার পথে যুক্তিবাদী সমিতি

নবদ্বীপ, নদিয়া: শহরকে প্লাস্টিক মুক্ত করার উদ্দেশ্যে মানুষকে সচেতন করতে ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি নবদ্বীপ শাখার পক্ষ থেকে শহর জুড়ে চললো প্লাস্টিক বর্জনের আবেদন ও পোস্টারিং কর্মসূচী।
হাটে, বাজারে, দোকানে সর্বত্রই প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহার হচ্ছে। সিঙ্গেল-ইউস-প্লাস্টিকের ব্যবহার শহর জুড়েই চলছে। প্লাস্টিক-বর্জ্য যত্রতত্র ফেলার কারণে শহরের জলনিকাশি ব্যবস্থা অকেজো হয়ে পড়ছে। ফলে বৃষ্টির জল সহজে বেড়িয়ে যেতে না পারায় শহর জলমগ্ন হয়ে পড়ে এবং মানুষের দুর্ভোগ বাড়িয়ে তোলে।
প্রায় ১.২ বিলিয়ন পাউন্ড প্লাস্টিক প্রতি বছর মিশছে ভাগীরথীতে। নদীতে ব্যাপক পরিমাণে প্লাস্টিক দূষণ জলজ বাস্তুতন্ত্রের প্রভূত ক্ষতি করছে। সাম্প্রতিক কালে বিশ্ব জুড়েই এর প্রমাণ মিলছে। বিভিন্ন জলজ প্রাণীর পেট থেকেও বিপুল পরিমাণ প্লাস্টিক উদ্ধার হচ্ছে। নদিয়া জেলার শান্তিপুর ও কৃষ্ণনগরের থেকে নবদ্বীপে প্লাস্টিক-বর্জ্য অনেক বেশি। শহরের বেশ কিছু দোকানদার রাস্তার ধারে প্লাস্টিকের ক্যারিব্যাগ পুড়িয়ে পরিবেশ দূষণে ব্যস্ত থাকেন। এই দৃশ্য রাস্তায় প্রায়শই দেখা যায়। প্লাস্টিক পোড়ানোর ফলে শ্বাসকষ্ট এবং মারন রোগ ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে।


ভারতীয় বিজ্ঞান ও যুক্তিবাদী সমিতি নবদ্বীপ শাখার সম্পাদক প্রতাপ চন্দ্র দাস বলেন, “সরকার দূষণ নিয়ন্ত্রণ আইন করে রেখেছে এবং প্লাস্টিক ব্যাগ ব্যবহারের উপর নিষেধাজ্ঞাও জারি করেছে। অথচ প্লাস্টিক দূষণ রুখতে প্লাস্টিক উৎপাদন বন্ধ করতে সরকার বা প্রশাসন উদ্যোগী হচ্ছে না — এটাই আশ্চর্যের বিষয়। প্লাস্টিক-বর্জ্য যেখানে সেখানে ফেলা কঠোরভাবে বন্ধ করার ব্যাপারে প্রশাসনকেই উদ্যোগী হতে হবে এবং প্রয়োজনে শাস্তির ব্যবস্থাও করতে হবে। পাশাপাশি জনগনকেও সচেতন করতে হবে প্রশাসনের তরফ থেকে। নচেৎ প্লাস্টিক দূষণ থেকে এই পরিবেশকে বাঁচানো মুশকিল হয়ে পড়বে। আসুন আমরা নাগরিকরাও প্রশাসনের সাথে হাত মিলিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে আমাদের দেশকে প্লাস্টিক মুক্ত করে গড়ে তুলি যাতে আমরা এবং আমাদের ভবিষ্যৎ সুস্থভাবে বাঁচতে পারি।”

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *