“দ্রোণাচার্য” আচরেকার প্রয়াত

দেশ ও এই সময়, মুম্বাই: ক্রিকেটের ২২ গজ পূর্ণতা পেয়েছে তার ছোঁয়ায়। শচীন টেন্ডুলকার শুধু ভারত নয়, গোটা ক্রিকেট বিশ্বকেই সমৃদ্ধ করেছেন তার অনন্য ব্যাটিং প্রতিভা দিয়ে। যার হাত ধরে সাফল্যের পথে হাঁটা শুরু, তার সেই গুরু রমাকান্ত আচরেকার আর নেই। বুধবার পৃথিবী ছেড়ে গেছেন টেন্ডুলকারের কোচ।

৮৬ বছর বয়সে মুম্বাইয়ে মারা গেছেন আচরেকার। ২০১৩ সালের স্ট্রোকের পর থেকে নানান অসুখে ভুগছিলেন তিনি। বাকশক্তিও হারিয়ে ফেলেছিলেন ১৯৩২ সালে জন্ম নেওয়া এই কিংবদন্তি কোচ। নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে তেমন কিছু না থাকলেও কোচিং প্রতিভা দিয়ে আচরেকার তৈরি করেছেন টেন্ডুলকার ছাড়াও বিনোদ কাম্বালি, প্রবীণ অমরি, অজিৎ আগারকার ও রমেশ পাওয়ারের মতো খেলোয়াড়।

নিজের তত্ত্বাবধানে আচরেকার ১১ বছরের ছোট্ট টেন্ডুলকারকে গড়ে দিয়েছিলেন আগামীর ভিত। যে ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে ক্রিকেট বিশ্ব শাসন করেছেন ইতিহাসের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। যার ছায়ার তলে বেড়ে ওঠে টেন্ডুলকার ভারতীদের কাছে পরিণত হয়েছেন ‘ক্রিকেট ঈশ্বর’। দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর টেন্ডুলকারের প্রথম কোচ বিদায় নিলেন পৃথিবী থেকে।

১৯৬০ সালে স্টেট ব্যাংক অব ইন্ডিয়ার হয়ে হায়দরাবাদ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের বিপক্ষে আচরেকার খেলেছিলেন একমাত্র প্রথম শ্রেণির ম্যাচ। খেলোয়াড়ি জীবনকে সমৃদ্ধ করতে না পারলেও ১৯৮০’র দশকে তার হাতে গড়ে ওঠে আগামীর সব তারকা।

ক্রিকেটে অনন্য অবদানের জন্য ১৯৯০ সালে আচরেকার পান দ্রোণাচার্য অ্যাওয়ার্ড। এর ২০ বছর পর ২০১০ সালে তাকে দেওয়া হয় ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মানসূচক পুরস্কার পদ্মশ্রী।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *