নিয়োগের নয়া ঘোষণা করলেন শিক্ষামন্ত্রী

২০১৬ সালে স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক স্তরের শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় বসা বাকি প্রার্থীদেরও আবেদন খতিয়ে দেখে নিয়োগের আশ্বাস দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। বিকাশ ভবনে এসএসসি’র চেয়ারম্যান শুভশঙ্কর সরকার এবং অন্যান্য কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি বেরিয়ে জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবার মতো এই প্রার্থীদের প্রতিও সহানুভূতিশীল। সরকারও বিষয়টা সহানুভূতির সঙ্গেই দেখছে।
আইনি প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখে, ন্যায্যতা বিচার করে এদের বিষয়ে পদক্ষেপ করবে স্কুল সার্ভিস কমিশন। ২০১৮-১৯ সালে নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পরেও কেন এঁদের বিষয়ে ভাবতে দেরি হল? এই বিষয়ে ব্রাত্যবাবু বলেন, ‘‌কোভিড, নির্বাচন প্রভৃতি চলে আসার কারণেই দেরি হয়েছে।’‌ শনিবার সল্টলেকে এই প্রার্থীদের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধও হয় পুলিশের। তারপরে সরকার আরও বেশি জোর দিয়ে বিষয়টি দেখছে। কমিশনের চেয়ারম্যান শুভশঙ্কর সরকার বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে।
প্রার্থীদের আবেদন খতিয়ে দেখে, যথার্থতা অনুযায়ী তাঁদের নিয়োগের ব্যবস্থা করা হবে। চেয়ারম্যান বলেন, তিনি বা শিক্ষামন্ত্রী স্বপদে নিযুক্ত হওয়ার আগেই এই পরীক্ষা এবং নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে। তাই আমাদের এখন বিষয়টি দেখতে হবে। কবে থেকে তা শুরু করা যাবে? তিনি জানান, উচ্চ প্রাথমিকের প্রার্থীদের অভিযোগ শোনা শুরু হয়েছে মঙ্গলবার থেকে। তারপরে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের প্রার্থীদের বিষয়টি দেখা হবে। উচ্চ মাধ্যমিকের চাকরিপ্রার্থী দীপিকা বিশ্বাস বলেন, সব মিলিয়ে আনুমানিক দু’-আড়াই হাজার প্রার্থী রয়েছেন। উচ্চ প্রাথমিকে প্রায় ১৯০০ প্রার্থী ইন্টারভিউয়ে উপস্থিত হননি।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *