আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপনে পশ্চিমবঙ্গ নারী ও শিশু কল্যাণ দফতর

আকাশ মাকাল, বিধাননগরঃ- শনিবার সল্টলেকের রবীন্দ্র ওকাকুড়া ভবনে পশ্চিমবঙ্গ নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের তরফে উদযাপন করা হল আন্তর্জাতিক নারী দিবস। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী ডঃ শশী পাঁজা। তিনি এদিন বলেন, প্রতি বছর আন্তর্জাতিক নারী দিবসে একটি করে থিম থাকে। আর এবছরের থিম হল ‘থিঙ্ক ইকুয়াল, বিল্ড স্মার্ট। অর্থাৎ সর্ব ক্ষেত্রে নারীদের মধ্যে একটা সমতা বজায় রাখতে হবে। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে অসমতা না থাকলে সর্ব ক্ষেত্রে সমতা আনা সম্ভব হয় না। যেমন বাসে মহিলাদের জন্য আসন সংরক্ষণ ব্যাবস্থা না থাকলে নারীদের আরও অসুবিধার সম্মুখীন হতে হত।
এদিন এই অনুষ্ঠানে সম্মানিত করা হয় রাজ্যের বিভিন্ন মহিলাদের। যারা নিজেদের দক্ষতায় সমাজের বিভিন্ন পর্যায় প্রতিষ্ঠা লাভ করেছেন। এদের মধ্যে ছিলেন নাচনী পোস্তবালা, সোনালী ঘোষ, ইস্মাতারা খাতুন, কল্পনা চিত্রকর প্রমুখ। এদের প্রত্যেকের হাতে এদিন বিশেষ সম্মান প্রদানের পাশাপাশি তুলে দেওয়া হয় ১৫ হাজার টাকার চেক।
এই অনুষ্ঠানে ডঃ শশী পাঁজা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের চেয়ার পারসন লীনা গঙ্গোপাধ্যায়, এই দফতরের সচিব শঙ্খ মিত্র ঘষের মত প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গেরা। অনুষ্ঠানে সম্মান প্রদর্শনের পাশাপাশি দেখানো হয় নারী পাচার ও বৃদ্ধ মানুষদের উপর অত্যাচারের উপর দুটি তথ্যচিত্র। যেগুলি পরিচালক সুজিত পাইন পরিচালনা করেছেন বলে জানা গেছে।
এদিন অনুষ্ঠানে নারী ও শিশু কল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন, আগেকার যুগে প্রতিটা ক্ষেত্রে পুরুষদের পাশাপাশি নারীরাও সমান মর্যাদা পেতেন। কারণ আমরা কখনোই শিব-পার্বতীকে, রাধা-কৃষ্ণকে আলাদা করে ভাবে ভাবতে পারিনা। কিন্তু এরপর সমাজের অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে কোথাও যেন সমাজে নারীরা অবহেলিত হতে থাকে দিনের পর দিন। যে পরম্পরা এই একবিংশ শতাব্দীতেও সমাজের বিভন্ন পর্যায় লক্ষ্য করা যায়। আমাদের উচিৎ সমাজে নারী ও পুরুষদের আলাদা করে না ভাবা। তবেই সমাজে নারী ও পুরুষদের মধ্যে সমতা বজায় রাখা সম্ভব হবে।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *