প্রধানমন্ত্রীর প্রকল্পে পদ্ম, মোদী কেয়ারে না মমতার

দেশ ও এই সময়: বৃহস্পতিবার মোদী সরকারের বিরুদ্ধে কার্যত রুদ্রমূর্তি ধারণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নদীয়ার সভা থেকে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মোদী সরকারের আচরণ হিটলার-মুসোলিনির থেকেও ভয়ঙ্কর!’ শুধু তাই নয়, রাজ্যের নানা প্রকল্প কেন্দ্রীয় সরকার কার্যত চুরি করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। সেইসঙ্গে ঘোষণা করে দেন, আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে আর কোনও টাকা দেবে না রাজ্য সরকার।

উল্লেখ্য,

  • আয়ুষ্মান ভারত স্বাস্থ্য যোজনায় ১০ কোটি পরিবারের প্রায় ৫০ কোটি মানুষকে স্বাস্থ্যবীমার সুবিধা দেওয়া হবে।
  • এতে ৫ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবীমার সুবিধা পাবে প্রতিটি পরিবার।
  • এই প্রকল্পে ৬০% টাকা দেওয়ার কথা কেন্দ্রের আর ৪০% রাজ্যের।

এদিন মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন, ‘রাজ্যের থেকে সমস্ত টাকা কেটে নিয়ে চলে যাচ্ছে কেন্দ্র। অথচ যৌথভাবে করা প্রকল্পগুলিকে কেবলমাত্র নিজেদের নামেই প্রচার করে চলেছে।’ তিনি অভিযোগ করেন, ‘সরকারি কর্মসূচীগুলিকে দলীয় প্রচারের জন্য খোলাখুিল ব্যবহার করছে বিজেপি। পোস্ট অফিস থেকে রাজ্যের চিঠি পাঠাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ছবি দিয়ে। এটা মেনে নেওয়া যায় না।’

এদিনের সভা থেকে তিনি দাবি জানান, রাজ্য থেকে আয়কর তুললে, তার ভাগ রাজ্যকে দিতে হবে। সেইসঙ্গে অন্যান্য রাজ্য সরকারের উদ্দেশে তাঁর বক্তব্য, ‘নজর রাখুন, ওরা (কেন্দ্র) রাজ্যের কাজ নিজেদের নাম দিয়ে চালাচ্ছে।

গুরুত্বপূর্ণ হল,

  • গত বছর আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প থেকে সবচেয়ে বেশি লাভবান হয়েছে বিহার, ছত্তিসগড় এবং পশ্চিমবঙ্গ। নভেম্বরের শেষ অবধি কেন্দ্র এ প্রকল্পে মোট খরচ করেছে ৭৯৮.৩৪ কোটি টাকা। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের ভাগে পড়েছিল ১৯৩.৩৪ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুপ্রিয়া প্যাটেল আগেই এ তথ্য দিয়েছিলেন। এই খরচের মধ্যে প্রশাসনিক খরচ ছিল ১৬.৭৮ কোটি টাকা।
  • এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় স্বাস্থ্য বিমা যোজনায় ৬৩ লক্ষ মানুষ ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিমাভুক্ত।

এ প্রকল্পের ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি আপত্তি তুলেছিল তৃণমূল সরকার। তবে এ ব্যাপারে কেন্দ্রের সঙ্গে শেষপর্যন্ত মৌ স্বাক্ষর করে তারা।

পশ্চিমবঙ্গে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প তৃণমূল সরকারের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত। যে প্রকল্পে সরকার ৪০ লক্ষ পরিবার বার্ষিক ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্বাস্থ্য খরচ পেয়ে থাকে এবং চিকিৎসার মোট খরচের ৪০ শতাংশ বহন করে সরকার।

কেন্দ্রকে জানিয়ে চিঠি রাজ্য সরকারের

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *