সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সন্তানকে ফিরে পেল মা

সোশ্যাল মিডিয়ার কুফলের কথা গুরুজনদের মুখে মুখে। কথায় কথায় ফেসবুক খারাপ, হোয়াটসঅ্যাপ খারাপ, মুখে মুখে নিন্দার ঝড় বয়, অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধেও। কিন্তু সেই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মানসিক ভারসাম্যহীন হারানো সন্তানকে ফিরে পেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা ধারণাই বদলে দিল হারিয়ে যাওয়া পাপ্পু সিংহের (২৫) পরিবার। সন্তানকে ফিরে পেয়ে সোশ্যাল মিডিয়াকেই অসংখ্য ধন্যবাদ জানালো পাপ্পুর দাদা আব্দেশ সিংহ ও মামা গুজ্জর সিংহ।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, গত সাত মাস আগে অর্থাৎ চলতি বছরের মে মাসের ৪ তারিখ বিহারের মাধেপুরা জেলার চৌসা থানার ভাটগওয়া এলাকার বছর পঁচিশের পাপ্পু সিংহ বাড়ি থেকে বেরিয়ে বোনের বাড়ি যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় তাঁর আর বাড়ি ফেরা হয়নি। পরিবারের লোকজন খোঁজখবর করেও কোনও সন্ধান পাননি। স্থানীয় থানাও কোনও হদিশ পায়নি। শেষ পর্যন্ত সাহায্য পেল সোশ্যাল মিডিয়ার। ইতিমধ্যে পথ ভুল করে পাপ্পু চলে আসে বসিরহাট মহকুমার বাদুড়িয়ার কলিঙ্গতে। সেখানকারই রফিকুজ্জামান নামক এক সুহৃদ চিকিৎসক পাপ্পুর ছবি স্যোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয়। ভাইরাল হয় সেই ছবি। পাশাপাশি পাপ্পুর থেকে তার বাড়ির ঠিকানা নিয়ে যোগাযোগ করা হয় বিহারের চৌষা থানায়‌। পুলিশ তদন্ত শুরু করে। ইতিমধ্যে পাপ্পুর দাদা আব্দেশ সিংহ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইয়ের ছবি দেখতে পায়‌। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয় গত ২০নভেম্বর ওই পোস্টটি দেখার পরে তারা বিহারের চৌষা থানায় যোগাযোগ ক‍রে। চৌষার থানার পুলিশ বাদুড়িয়ার রফিকুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করিয়ে দিলে রবিবার সকালে পাপ্পুর দাদা আব্দেশ সিংহ ও মামা গুজ্জর সিংহ তাকে নিতে আসে। এবং ঐ সুহৃদ চিকিৎসক পাপ্পু ও তার পরিবারের লোককে মছলন্দপুর স্টেশন থেকে ট্রেনে তুলে দেয়।
*সূত্র—mongalkote.com*

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *