জল স্থল বায়ু শুধু নয় , জানান দিল এবার মহাকাশেও শত্রু মোকাবিলা করতে প্রস্তুত ভারত

দেশ ও এই সময়, ২৭শে মার্চ: মহাকাশ গবেষণায় ভারতের আজ বড় গর্বের দিন৷ ভারতের ওপর অবৈধ ভাবে নজরদারী চালানোর অভিযোগে একটি লো আর্থ অরবিট কৃত্রিম উপগ্রহকে মেরে ধ্বংস করল ভারতীয় বিজ্ঞানীরা। এর ফলে মহাকাশ শক্তিতে বিশ্বে চতুর্থ দেশ হলো ভারত৷ অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল দিয়ে মহাকাশে একটি অব্যবহৃত লো অরবিট স্যাটেলাইট ধ্বংস করেছে ভারত৷ এই মিশনের নাম, “মিশন শক্তি” ৷ আমেরিকা, রাশিয়া, চিনের পরেই মহাকাশ শক্তিতে এখন ভারতের স্থান৷ ৩ মিনিটেই ভারতের তৈরি এই এ স্যাট মিসাইল ধ্বংস করে অব্যবহৃত একটি স্যাটেলাইটকে৷ এদিন সকাল ১১টা ১৬ মিনিটে মাত্র তিন মিনিটের মধ্যেই সম্পন্ন হয়েছে অত্যন্ত কঠিন এই অপারেশন । ওডিশার বালেশ্বরে এই এ-স্যাট ক্ষেপনাস্ত্রটি উৎক্ষেপন হয়েছে।” মিশন শক্তি”র এই অপারেশান কেন্দ্রীয় সরকারের বড়সড় সাফল্য বলে তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোদি বলেন, এর ফলে ভারত পৃথিবীর চতুর্থ মহাকাশ শক্তি হল।


তিনি আরো বলেন, এই উপগ্রহবিরোধী মিসাইল কোনও জাতির উদ্দেশে নয়, তা সবরকম আন্তর্জাতিক মাপকাঠিতে উত্তীর্ণ। বহির্বিশ্বে অস্ত্রপ্রয়োগের বিরোধী ভারত। এই কাজ কোনও আন্তর্জাতিক আইন ভঙ্গ করেনি। ভারতের নিরাপত্তা ও সমৃদ্ধির জন্য তাঁর সরকার নিরন্তর কাজ করছে। দেশের জন্য এর থেকে ভালো খবর আর হতে পারে না। এর জন্য সবারই গর্বিত হওয়া উচিত। শুধু জলে, স্থলেই নয়, ভারত এখন অন্তরীক্ষেও আক্রমণ করার যোগ্য।

আর প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণারে পরেই দেশজুড়ে শুরু হয়েছে শোরগোল। বিজেপি নেতৃত্বরা দাবী করতে শুরু করেছেন মোদীর নেতৃত্বে ভারতের বিজ্ঞানীদের এই অভূতপূর্ব সাফল্য হয়েছে। এই সাফল্যের কৃতিত্ব বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের। এর ফলে ভারতের মাথায় নতুন পালক যোগ হল বলে বিজেপি নেতাদের দাবী। কিন্তু বিরোধীদের বক্তব্য এই মিশন শুরু হয়েছিল নয় বছর আগে ইউপিএ টুর আমলে। তখন এই প্রকল্পের সাথে বর্তমান সরকারের কোনো যোগই ছিল না। কারণ বর্তমান সরকার সবে মাত্র পাঁচ বছর পূর্ণ করেছে।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *