বাংলা ভাষার জন্য শহীদদের স্মরণ সভা ও প্রভাতফেরী হাইমাদ্রাসার

সৈয়দ রেজওয়ানুল হাবিব, উঃ ২৪ পরগণা: উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙ্গার বড়গাছিয়া আদর্শ হাই মাদ্রাসা (উঃমাঃ)র শিক্ষক ও ছাত্রছাত্রীদের ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে প্রভাতফেরী ও স্মরণ সভা উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় ।

মাদ্রাসার সহস্রাধিক ছাত্রছাত্রী ও শিক্ষকশিক্ষিকাবৃন্দ কয়েক মাইল রাস্তা অতিক্রম করে পুনরায় মাদ্রাসায় ফিরে আসে। তারপর শুরু হয় শহিদদের আত্মার শান্তি কামনায় নিরবতা পালন। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের গুরুত্ব ও তাতপর্যকে সামনে রেখে ছাত্রছাত্রীরা একুশে ফেব্রুয়ারির গান, কবিতা পাঠ, আবৃত্তি, বক্তৃতা ইত্যাদি। সম্পুর্ণ অনুষ্ঠানটি খুব সুন্দর ও প্রানবন্ত হয়ে উঠে, সাংস্কৃতিক ব্যক্তৃত্ত শিক্ষক গালিব মন্ডলের পরিচালনার মাধ্যমে। মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক সেখ গোলাম মোস্তাফা শহিদ বেদীতে মাল্যদান করে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, মাতৃভাষা আমাদের মায়ের ভাষা, প্রানের ভাষা গোটা বাঙালী জাতির জাতীয় ভাষা, এই ভাষার মর্যাদা অপরিসীম।এই ভাষার মর্যদা ও ঐতিহ্যকে অক্ষুন্ন রাখার জন্য অঙ্গিকার বদ্ধ হওয়ার সকলকে আহবান করেন।এছাড়া বক্তব্য রাখেন মাদ্রাসার শিক্ষক ও সিরাত সোস্যাল ওয়েলফেয়ার অ্যান্ড এডুকেশনাল ট্রাষ্টের রাজ্য সম্পাদক আবু সিদ্দিক খান বলেন, ১৯৪৭ এ দেশ ভাগের পর বাংলা ভাষার ৪ কোটি ৪০ লক্ষ জনগন ছিন্নমুল হয়ে আশ্রয় নিল পাকিস্তানের অধিরাজ্য পূর্ববাংলায়। সেই সময় পাকিস্তানের করাচীতে “জাতীয় শিক্ষা সম্মেলন” এ রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি পেল উর্দু ভাষা।

কিন্তু যারা মর্মে মর্মে উপলব্ধি করেছে যে ” মোদের গরব,মোদের আশা, আমরি বাংলাদেশ ভাষা” তাদেরকে ঠেকায় সেদিন। সেই আব্দুস সালাম, বরকত, রফিকউদ্দিন, আব্দুল জব্বার, শফিউর সহ একাধিক ভাষাপ্রেমী সম্মেলীত হয়ে গনতান্ত্রিক পদ্ধতিতে ১৯৫২ সালে ২১শে ফেব্রুয়ারি দুপুর বেলা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে গন আন্দলন গড়ে তুললে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীরা নিরীহ অগনিত ছাত্রদের উপর নির্বিচারে গুলি চালালে শতাধিক ছাত্রের প্রাণ যায়। তারা তাদের বিনোদন বা নিজেদের লাভের উদ্যেশে প্রাণকে বিসর্জন দেয়নি গোটা বাঙালী জাতির মাতৃভাষাকে অক্ষুন্ন রাখতে প্রাণকে বিসর্জন দিয়েছিল। তাদের আত্মার বলিদানে আজ আমরা এই ভাষা ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে রাস্ট্রীয় মর্যাদায় ভূষিত হয়। তখন থেকে একুশে ফেব্রুয়ারি দিনে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করে আসছে সারা বিশ্ব। এছাড়া বক্তব্য রাখেন সহকারী প্রধান শিক্ষক সেখ হাসিবুর রহমান, শিক্ষিকা মারুফা খাতুন, ইমাম বক্স, ছাত্র রিয়াজুদ্দিন প্রমুখ।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *