কংগ্রেস হাইকমান্ডের সিদ্ধান্তে রাজনৈতিক জল্পনা চলছে মালদা তে

দেবাশীষ পাল, মালদা : সিদ্বান্তে জোরে ধাক্কা খেলো মালদার কোতুয়ালি ভবন। দক্ষিণ মালদার সংসদ আবু হাশেম খান চৌধুরী কংগ্রেসের হাইকমান্ডের নিদেশে পদ খোয়ালেন।মালদা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হন প্রয়াত গনিখান চৌধুরীর ভাই তথা দক্ষিণ মালদার সংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী।

তবে তিনদিনের মধ্যেই কংগ্রেস হাইকমান্ডের নির্দেশে দক্ষিণ মালদার সাংসদ আবু হাসেম খান চৌধুরী মালদা জেলা কংগ্রেসের সভাপতির পদ থেকে হঠাৎ সরিয়ে নতুন মালদা জেলা কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে হরিশচন্দ্রপুরের বিধায়ক মুস্তাক আলম কে দায়িত্বভার দেয়। কংগ্রেস হাইকমান্ডের এই সিদ্ধান্তকে রাজনৈতিক জল্পনা বেধেছে। উত্তর মালদার সংসদ মৌসম বেনজির নূর দল ত্যাগ এবং কংগ্রেসের সমালোচনার জন্যই কোতোয়ালি ভবনের উপর আস্থা হারিয়ে ফেলেছে কংগ্রেস হাইকমান্ড। অন্যদিকে কংগ্রেসের একাংশ মনে করছেন মৌসুম দল ছাড়ার দিনিই দক্ষিণ মালদার সংসদ আবু হোসেম খান চৌধুরী তার মালদার জন্য তার ছেলে সুজাপুর বিধানসভার গায়ক ঈশা খান চৌধুরীর নাম ঘোষণা করতেই আবু হাসেম খান চৌধুরী কে মালদা জেলা কংগ্রেস সভাপতি পথ থেকে সরিয়ে দিয়েছে কংগ্রেস নেতৃত্ব।কারণ এই মুহূর্তে ব্রাজ্জের যে পরিস্থিতি তাতে কেন্দ্রীয় কংগ্রেস নেতৃত্ব তৃণমূল নেত্রীর পাশে দাঁড়িয়েছে।বিভিন্ন সময় সর্বভারতীয় কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী পাশে দাঁড়িয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কংগ্রেস হাইকমান্ড চাইছে না উত্তর মালদা কেন্দ্রে কোতুয়ালি ভবনের দুই প্রার্থী মুখোমুখিলড়াই হোক।কংগ্রেস প্রার্থী কোতুয়ালি ভবন থেকে দাঁড়ালে মৌসাম নুর তৃণমূলের টিকিটে জিতে সংসদে পৌঁছানোর রাস্তাটা যে খুব কঠিন হবে তা ও সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছে না জেলা কংগ্রেসের কর্মীরা।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *