লটারি কেটে দেনা, আত্মঘাতী যুবক

গোপিনাথ রায়, গাইঘাটা: প্রতিনিয়ত লটারি কাটতে কাটতে দেনায় জড়িয়ে পড়ায় গলায় দড়ি নিয়ে আত্মঘাতী হল যুবক। মৃতের নাম দীপক হালদার (৪০)। চার দিন নিখোঁজ থাকার পর শনিবার সকালে বাড়ির পাশের স্কুল ঘর থেকে মৃত দেহ উদ্ধার হয় তার। এদিন ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগণার গাইঘাটা থানার চাঁদপাড়া দীঘা এলাকায়।

সূত্রের খবর, চাঁদপাড়া দীঘা এলাকার বাসীন্দা পেশায় রাজ মিস্ত্রী দীপক হালদার গত মঙ্গলবার সকাল থেকে নিখোঁজ ছিল। শনিবার সকালে দীঘা সুকান্তপল্লী এফ পি প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষকেরা স্কুল ঘর খুলতে গিয়ে দেখেন স্কুলের উপরের একটি ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আছে দীপক। এই ঘটনায় পড়ুয়াদের মধ্যে চাঞ্চল্য সৃষ্ট হয়। খবর দেওয়া হয় গাইঘাটা থানায়। পুলিশ এসে মৃত দেহটি উদ্ধার করে।

পরিবারের সুত্রে জানাগেছে, দীপক এই স্কুলে নির্মাণের কাজ করছিল সেই কারনে তার কাছে স্কুলের চাবি ছিল। দীপকের দুই বিয়ে প্রথম পক্ষে তার চার মেয়ে ও দ্বিতীয় পক্ষে এক মেয়ে। পাঁচ মেয়ের বিয়ে দিতে প্রচুর টাকা দরকার তাই অল্প সময়ে বেশি টাকা আয়ের জন্য লটারি কটতে শুরু করে। তাতে লাভের থেকে ক্ষতি বেশি হয়। কাজ করে যে টাকা আয় করত তার বেশির ভাগই লাটারি কেটে উড়িয়ে দিত। লাটারির নেশায় সে প্রচুর টাকা দেনা হয়ে পরে। আর সেই করনে এই আত্মহত্যা বলে দীপকের পরিজনদের অভিযোগ।তবে খুন না আত্নহত্যা তা জানার জন্য মৃতদেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে গাইঘাটা থানার পুলিশ।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *