লক্ষ্মী পুজোর ভোগের খিচুড়ির রেসিপি

অন্তরা নাগ:

যতই আধুনিকরন আসুক না কেন, লক্ষ্মী পুজোয় ভোগের খিচুড়ি স্বাদ নিতে আধুনিকতাকেও পেছনে ফেলে দেয় বাঙ্গালী। মাটির থালায় গোবিন্দভোগ চালের খিচুড়ি জিভে জল এনে দেয় সকল খাদ্যপ্রেমিকদের। কিন্তু ব্যস্ত সময়ে রান্নাতে প্রায় মরচে পড়ে গেছে, তবে চিন্তার কোনো কারন নেই, চট করে দেখে নেওয়া যাক ভোগের খিচুড়ির রাঁধবার পদ্ধতি।

উপকরণ:

গোবিন্দভোগ চাল-১ কাপ,হলুদ মুগ ডাল-৩/৪ কাপ, আদা-১ ইঞ্চি (বাটা), কাঁচা লঙ্কা-২টো (বাটা),আলু-২টো (খোসা ছাড়িয়ে অর্ধেক করে কাটা), ফুলকপি-২ কাপ,কড়াইশুঁটি-১ কাপ, দেশি ঘি-১ কাপ, তেল-২ টেবিল চামচ, গোটা জিরে-১ চা চামচ, দারচিনি-১টা স্টিক (বড়), ছোট এলাচ-৩টে, লবঙ্গ-৩টে,তেজপাতা-২টো, হলুদ গুঁড়ো-১ চা চামচ, লঙ্কা গুঁড়ো-১ চা চামচ,গরম মশলা গুঁড়ো-১ চা চামচ, নুন-স্বাদ মতো।

রান্নার আগে:

মুগ ডাল শুকনো খোলায় ভেজে নিন। ভাজা ডাল ঠান্ডা করে ভাল করে জল দিয়ে ধুয়ে রাখুন। চাল ভাল করে ধুয়ে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। তারপর জল ঝরিয়ে নিন। ফুলকপি ছোট ছোট টুকরো করে ফুটন্ত গরম জলে ভাপিয়ে নিয়ে নুন, হলুদ মাখিয়ে রাখুন। কড়াইতে তেল দিয়ে তেল গরম হলে আলু সোনালি করে ভেজে নিন।

পদ্ধতি:

কড়াইতে তেল দিয়ে তেল গরম হলে আলু সোনালি করে ভেজে নিন। আলু তেল থেকে তুলে নিয়ে ফুলকপি দিয়ে ভেজে তুলে রাখুন। প্রেশার কুকারে ঘি দিয়ে গোটা জিরে, দারচিনি, তেজপাতা, লবঙ্গ, ছোট এলাচ, আদা ও কাঁচা লঙ্কা বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। ফোড়নের সুন্দর গন্ধ বেরোলে ভাজা মুগ ডাল দিয়ে ২ মিনিট ধরে নাড়তে থাকুন। এ বার জল ঝরানো চাল দিয়ে দিন প্রেশার কুকারে। চাল, ডাল ভাল করে মিশিয়ে ২ মিনিট নেড়ে নিন। প্রেশার কুকারে ভাজা আলু ও ভাজা ফুলকপি দিন। গুঁড়ো হলুদ ও লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এর পর কড়াইশুঁটি দিয়ে দিন। সব শেষে প্রয়োজন মতো জল, গরম মশলা ও নুন দিয়ে প্রেশার কুকারের ঢাকনা বন্ধ করে ২টো হুইসল ওঠা পর্যন্ত সিদ্ধ হতে দিন। খিচুড়ির উপরে ঘি ছড়িয়ে লাবড়া, আলুর দম, বেগুনি ও পাঁপড় সহযোগে পরিবেশন করুন।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *