১২টি কেন্দ্রে নিজস্ব প্রার্থী, বিজেপিকে রুখতে বাকিগুলোয় বামেদের সমর্থন CPI (M-L) লিবারেশনের

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার নির্বাচনে কী করবে লিবারেশন? আলোচনা ছিলই। বিশেষ করে সম্প্রতি বিহারে তাদের বিরাট সফলতার পরে, পশ্চিমবঙ্গের ভোটে অবস্থান নিয়ে চর্চায় বারবার উঠে আসছিল সংসদীয় রাজনীতির ‘স্টার’ অতি বামপন্থী দলটির কথা।

অবশেষে রাজ্যে ভোট লড়াইয়ে নামল সিপিআই(এমএল) লিবারেশন। ১২ জন প্রার্থী লড়াই করবেন বলে জানিয়েছে দলটির রাজ্য কমিটি। সেই সঙ্গে আরও বলা হয়েছে, এই ১২টি আসনের বাইরে বামপন্থী দলগুলির যে সকল প্রার্থী দাঁড়াবেন, তাদের সমর্থন করা হবে। এই মর্মে দলের ফেসবুকে পোস্ট করা হয়েছে।

শুক্রবার সিপিআই(এমএল) লিবারেশন তাদের ফেসবুকে যে ১২ জনের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে,তাতে বিজেপির বিরুদ্ধে বার্তা রয়েছে। কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেসের নাম নেই। তবে ঘোষিত প্রার্থী তালিকার বাইরে বামদলগুলির প্রতি সমর্থন করে নীরবে তৃণমূলের বিরুদ্ধেও গিয়েছে লিবারেশন।

সিপিআই(এমএল) লিবারেশন জানিয়েছে, “সারা দেশের সাথে সাথে পশ্চিমবঙ্গেও আমরা বিজেপিকে জনগণের প্রধান শত্রু হিসাবে চিহ্নিত করে লাগাতার প্রচার করে আসছি। বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চ থেকে “বিষাক্ত ছোবলের” যে বার্তা সামনে এসেছে তার মোকাবিলা করার জন্য জনমত গড়ে তোলা বাংলার সকলের দায়িত্ব। যারা এখনো সে ব্যাপারে গুরুত্ব দিচ্ছেন না তাঁদের কাছে, বিশেষ করে সমস্ত বামপন্থী দল ও শক্তির কাছে আবারও অনুরোধ জানাচ্ছি।

আমরা যেসব আসনে লড়ছি, সেগুলি ছাড়া এবং জামালপুর আসনটি বাদে অন্যত্র এখনো পর্যন্ত বামফ্রন্টের দখলে থাকা আসনগুলিতে আমরা বামফ্রন্টের প্রার্থীদের সমর্থন জানাচ্ছি। এর সাথে জেএনইউতে বিজেপি বিরোধী সংগ্রামের আরেক মুখ ঐশী ঘোষ কে জামুরিয়া আসনে ও নাগরিকত্ব সুরক্ষা আন্দোলনের অন্যতম মুখ তথা সাহিত্যিক কপিলকৃষ্ণ ঠাকুরকে আমরা গাইঘাটা আসনে সমর্থন দিচ্ছি।”

লিবারেশন জানিয়েছে, রাজ্যে মোট ১২টি আসনে নির্বাচনী প্রতীক “পতাকায় তিন তারা” নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তাদের প্রার্থীরা। সাধারণ মানুষকে সাথে নিয়ে ধারাবাহিক আন্দোলন চালিয়ে আসছেন এরকম কমরেডদের সেই সেই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে।

একনজরে সিপিআই(এমএল) প্রার্থী তালিকা:

১৬-ময়নাগুড়ি(এসসি): উদয়শঙ্কর অধিকারি
২৭-ফাঁসিদেওয়া(এসটি): সুমন্তি এক্কা,
৫২-মোথাবাড়ি: মহম্মদ এব্রাহিম শেখ,
৬৬-খড়গ্রাম(এসসি): টুলুবালা দাস,
৮১-নাকাশিপাড়া: কৃষ্ণপদ প্রামাণিক,
৮৫-কৃষ্ণনগর দক্ষিণ: সন্তু ভট্টাচার্য,
১৮৫-উত্তরপাড়া: সৌরভ রায়,
১৯৭-ধনেখালি(এসসি): সজল কুমার দে,
২৪৯-রানীবাঁধ(এসটি): সুধীর মুর্মু,
২৫৪-ওন্দা: নির্মল ব্যানার্জী,
২৬২-জামালপুর(এসসি): তরুণকান্তি মাঝি,
২৬৩-মন্তেশ্বর: আনসারুল আমান মণ্ডল।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *