কোজাগরী লক্ষ্মী পুজো সম্পর্কে কিছু তথ্য

বৈদিক স্ত্রী দেবতাদের মধ্যে লক্ষ্মী ছিলেন সৌন্দর্য, সম্পদ ও সৌভাগ্যের দেবী। মহাভারতের বনপর্বে লক্ষ্মীকে বলা হয়েছে স্কন্দপত্নী। পুরান এ লক্ষ্মীর উৎপত্তি সম্পর্কে বিভিন্ন কাহিনী আছে। তার মধ্যে যে দুটি কাহিনী সবচেয়ে প্রচলিত সেগুলি হল- লক্ষ্মী এক হয় প্রসূতি গর্ভে দক্ষ অথবা কন্যা খ্যাতির গর্ভে ভৃগু কন্যা। আবার এরকম বলা হয় যে দেবাসুর মিলে সমুদ্র মন্থন করে লক্ষ্মী লাভ করেন। আবার একটি কাহিনী আছে যেখানে বলা হয়েছে, প্রথমে মা সরস্বতীর সৃষ্টি হয়, কিন্তু ক্ষুধা নিবারনের জন্য মহর্ষি ভৃগু অন্নের দেবী খুঁজতে বেরোন আর তখনই লক্ষ্মীর সন্ধান পান।

এই লক্ষ্মী দেবীর অভিষেকে নানাবিধ সমস্যার সমাধান হয়। যদি কারোর ব্যবসায় হঠাৎ পতন ঘটে, গৃহে দম্পতির মধ্যে অশান্তি ইত্যাদি সমস্যা দূর হয় মা লক্ষ্মীর অভিষেকে। এছাড়াও মা লক্ষ্মী শুধু ধন দানই করেন না, জ্ঞান বুদ্ধি ও সঠিক চরিত্র গঠনেও সহায়তা করেন।

পূরাণ মতে, কোজাগরী শব্দটি এসেছে ‘কো জাগর্তি’ থেকে, যার অর্থ ‘কে জেগে আছো’৷ কথিত রয়েছে, এই পূর্ণিমার রাতে নাকি দেবী লক্ষ্মী জগৎ পরিক্রমা বের হন৷ তিনি দেখেন কেউ সারারাত জেগে আছেন কিনা| অনেকে এও বলে থাকেন, ওইদিন রাতে যে ব্যক্তি জেগে থাকেন এবং পাশাখেলা করেন তাঁকে মা লক্ষ্মী ধন-সম্পত্তি দান করেন৷ তাই ভক্তিপূর্ণ চিত্তে লক্ষ্মীপুজো করার পরে প্রথমে বালক, বৃদ্ধ ও শিশুদের খাবার গ্রহণ করাতে হয়| আজও ধন-সম্পদের দেবী লক্ষ্মীকে পাওয়ার জন্য গৃহস্থ বাড়িতে সারারাত ঘি-এর প্রদীপ জ্বালানো হয়। কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর দিন প্রতিটি ঘর মুখরিত হয়ে ওঠে শঙ্খধ্বনিতে৷

তাই মন প্রান দিয়ে মা লক্ষ্মীর আরাধনায় মেতে উঠুন, “দেশ ও এইসময়” থেকে রইল অনেক শুভেচ্ছা।


অন্তরা নাগ

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *