হরিনঘাটায় শিল্প পার্কের জন্য অধিকৃত জমিদাতাদের চেক প্রদান

কল্লোল দেবনাথ, নদিয়া: হরিণঘাটায় তৈরী হতে চলেছে ফ্লিপকার্ট ইন্ডাস্ট্রিয়াল হাব।পশ্চিমবঙ্গে শিল্পোন্নয়নের কাজে কৃষকদের কোনো ভাবেই যাতে ক্ষতির শিকার না হতে হয় তা নিশ্চিত করল রাজ্য সরকার।

হরিণঘাটা শিল্প তালুকের অন্তর্গত ১২৫ একর জমি দেওয়া হয়েছে ফ্লিপকার্টকে। পূর্বভারতের বৃহত্তম ওয়ারহাউস তৈরি হবে এখানেই।

সরকারের মালিকানায় থাকা এই জমির বেশ কিছু অংশে চাষ করছিলেন এলাকার স্থানীয় কৃষকরা। তাদের উৎপাদিত ফসলের ক্ষতিপূরণ হিসাবে চেক দেওয়া হল আজ, হরিণঘাটা বিডিও অফিস থেকে।

সেই সকল সরকারি জমিতে এলাকার যে সকল মানুষ চাষ করতো সেই সকল কৃষিজীবী মানুষের হাতে চেক তুলে দিলেন বিধায়ক নীলিমা নাগ মল্লিক। এদিন এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নদিয়া জেলা পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ ও হরিণঘাটা ব্লক তৃণমূল সভাপতি চঞ্চল দেবনাথ, হরিণঘাটা পৌরসভার পৌর প্রধান রাজিব দালাল , পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গৌতম কীর্তনীয়া, সহ-সভাপতি দেবাশীষ গাঙ্গুলী ।

আজ হাতে চেক পেয়ে কৃষকরা রাজ্য সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করলেন।প্রশাসনের তরফে উপস্থিত ছিলেন SDO ইউনুস রিজিন ইসমাইল , রাজ্য শিল্পন্নয়ন দফতরের কর্মকর্তা, হরিণঘাটার বিডিও কৃষ্ণ গোপাল ধারা , এডিও সহ অন্যান্য প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও ফ্লিপকার্টের তরফ থেকে দুজন প্রতিনিধি।।

প্রায় 124 জন চাষীকে 295 বিঘা জমিতে চাষ করা ফসলের ক্ষতিপূরণ দেওয়া হল রাজ্য শিল্পন্নয়ন দফতরের তরফে। ধানের জন্যে বিঘা প্রতি 6000 ও অন্যান্য ফসলের ক্ষেত্রে বিঘা প্রতি 10000 টাকা করে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হল। হরিণঘাটার ভূমিপুত্র তথা নদীয়া জেলাপরিষদের পূর্তকার্য ও পরিবহন দপ্তরের কর্মাধ্যক্ষ চঞ্চল দেবনাথ, মূলত যার আপ্রাণ প্রচেষ্টা চাষীদের মুখে হাসি ফুটিয়েছে। জমি অধিগ্রহনের পর চাষীরা ক্ষতিপূরনের জন্য আবেদন করেন তার কাছেই। রাজ্য সরকারের কাছে চাষীদের হয়ে দরবার করেন তিনিই। যার ফলশ্রুতি আজকের ক্ষতিপূরণ প্রদান।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *