দত্তপুকুরে ফের বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ, প্রতিবাদে থানা ঘেরাও অর্জুনের

প্রীতম বর্দ্ধন, বিশেষ প্রতিনিধি :

দত্তপুকুর:- ব্যারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্যতম স্পর্শকাতর অঞ্চল হল দত্তপুকুর,ভোটের দিন এগিয়ে আসতেই বিক্ষিপ্ত ভাবে গন্ডগোলের সুত্রপাত শুরু হয়ে গিয়েছে দত্তপুকুরে,গত বুধবার রাতে আমডাঙ্গা বিধানসভার অন্তর্গত দত্তপুকুর দিঘা দাসপাড়া অঞ্চলে এক বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের দিকে,এই নিয়ে বৃহস্পতিবার উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দত্তপুকুর কাশিমপুর সহ বেশ কিছু অঞ্চল,সমস্ত কর্মী সমর্থক রা থানায় উপস্থিত হয় এবং ব্যারাকপুরের বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিংয়ের তৎপরতায় থানা ঘেরাও করা হয়,এবং অর্জুন সিং নিজে দত্তপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিকের সাথে কথা বলেন,
স্থানীয় সূত্রে খবর গত বুধবার রাতে দিঘা দাসপাড়া এলাকায় বিজেপির সক্রিয় কর্মী অচিন্ত্য ওরফে টপ্পা (৪০) কে বাড়ি থেকে বার করে মারধর করা হয়,অভিযোগ স্থানীয় তৃণমূল কর্মী পেশায় পুলিশ গোপাল কাঞ্জিলাল এর বিরুদ্ধে এছাড়া তার সাথে ছিলেন পিন্টু কাঞ্জিলাল,এবং অমল বিষ্ণুর নামে তৃণমূল সমর্থকরা,বাড়ির লোক দত্তপুকুর থানায় খবর দিলে পুলিশের অতিসক্রিয়তায় তিনি প্রাণে বাঁচেন,এবং পুলিশ তাকে এবং তার পরিবার কে কাকভোর অবধি নিরাপত্তা দেন,
এছাড়া পুলিশী সূত্রে খবর রাত ১২ টা নাগাদ ওই বিজেপি কর্মীর বাড়ি হানা দেয় জনা পঞ্চাশের তৃণমূল বাহিনী যার নেতৃত্বে ছিলেন দত্তপুকুর অঞ্চলের ত্রাস গোপাল কাঞ্জিলাল,সঙ্গে তার ভাই পিন্টু,এবং ডানহাত অমল বিষ্ণু, বিজেপি কর্মী অর্থাৎ টপ্পা কে তারা জোর করে বাইরে এনে মারধর করে তৎক্ষনাৎ পুলিশ খবর পেলে একদল পুলিশ টপ্পা এবং তার পরিবারকে উদ্ধার করেন,ঘটনাস্থলে পুলিশ কে দেখে তারা চম্পট দেয়,তখন একদল পুলিশ তাদের তাড়া করে কিন্তু ততক্ষণে তৃণমূলী দুষ্কৃতীরা পলাতক,ঘটনার পর থেকেই গোপাল এবং তার ভাই ও ডান হাত তিনজনেই এলাকা ছাড়া, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় ওই রাতেই রুটমার্চ করে,
এছাড়া পুলিশী সূত্রে জানা গেছে দত্তপুকুরের এই ঘটনায় ৫জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে,এবং গোপাল কাঞ্জিলাল,পিন্টু কাঞ্জিলাল,সহ মোট আট জনের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা ঋজু হয়েছে,
এর আগে অর্জুন সিংয়ের ভোট প্রচার চলাকালীন তৃণমূল বাহিনী শিবালয়ের বিজেপি কর্মী সমর্থকদের উপর চড়াও হয়েছিল,তখন এই একই নাম গুলি উঠেছিল,
যদিও এসব ঘটনাতে অর্জুন সিং নিজের জয় কে দেখছেন,এদিন থানা ঘেরাও করতে এসে তিনি বলেন তৃণমূলের পায়ের নিচ থেকে মাটি সরে যাচ্ছে যার জন্য এসব করছে,এছাড়া তিনি এদিন পুলিশ কে এই ঘটনা গুলোর সুব্যবস্থা নেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন,
গোপাল কাঞ্জিলাল এবং তার তৃণমূল সমর্থকীরা যেভাবে দত্তপুকুর অঞ্চলে ত্রাস ছড়িয়েছে সেখানে আসন্ন মে মাসের ৬ তারিখে ভোট যে কতটা শান্তিপূর্ণ হবে সেটা এখন সাধারণ মানুষের কাছে চরম প্রশ্ন।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *