চন্দ্রকেতুগড় সংগ্রহশালা জনসাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হলো

সুজিত দাস : মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় আমাদের সাংসদ মাননীয়া ডাঃকাকলি ঘোষদস্তিদার আন্তরিক প্রচেষ্টায় বেড়াচাঁপাতেই তৈরি হল চন্দ্রকেতুগড় সংগ্রহশালা। মুখ্যমন্ত্রী বারাসাতে উদ্ধোধন করলেও তার দ্বারোঘটন করলেন সাংসদ ডাঃ কাকলী ঘোষ দস্তিদার।উপস্থিত ছিলেন জেলাশাসক অন্তরা আচার্য, বসিরহাটের সাংসদ ইদ্রিস আলী, মধ্যমগ্রামের বিধায়ক রথীন ঘোষ দেগঙ্গা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মফিজুল সাহাজি মিন্টু এবং বন ও ভূমি কর্মধ্যক্ষ এ কে এম ফরহাদ।দেগঙ্গার মানুষের কাছে দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল – প্রাগঐতিহাসিক যুগের প্রসিদ্ধ চন্দ্রকেতু গড়ের যে বহুমূল্যবান নিদর্শন গুলো বিভিন্ন ভাবে পাওয়া গেছে তার একটি সুন্দর ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে প্রত্নভাণ্ডার সংগ্রহশালা করে সেখানে সংরক্ষণ করা হোক। যাতে দেশ-বিদেশ থেকে আসা মানুষ ও ছাত্রছাত্রীরা দেখতে পান ও গবেষণা করতে পারেন। চন্দ্রকেতুগড়ের খনা-মিহিরের ঢিবি সংলগ্ন এলাকায় মাটির নীচে ছড়িয়ে রয়েছে বহু মূল্যবান প্রত্ন সামগ্রী। মাটি খুঁড়লেই মেলে এই এলাকার প্রাচীন সভ্যতার নিদর্শন। পুরাতত্ত্ববিদেরা জানিয়েছেন, তার মধ্যে রয়েছে পাল, গুপ্ত, মৌর্য, শুঙ্গ, কুষাণ যুগের পানপাত্র, হাতির শুঁড়, টালি, ইট, পুতুল, মিথুন মূর্তি, নানা আকারের মাটির পাত্র, মুদ্রা এবং বিভিন্ন দেবদেবীর মূর্তি। এতদিন ব্যক্তিগত উদ্দ্যোগে স্থানীয় পুরাতত্ত্ববিদ দিলীপ কুমার মৈতে

এ গুলো সংরক্ষণ করতেন। তিনি মারা যাবার পর সাংসদের প্রচেষ্টায় বেড়াচাঁপাতেই তৈরি হল চন্দ্রকেতুগড় সংগ্রহশালা।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *