দুই কিশোরের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার, তুমুল চাঞ্চল্য

দেবু সিংহ ,মালদা : দুই কিশোরের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারকে কেন্দ্র করে তুমুল চাঞ্চল্য ছড়ালো পুরাতন মালদা থানার সাহাপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় । শনিবার সকালে সাহাপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ডিস্কোমোড় এলাকার রাজ্য সড়কের ধারে একটি আম বাগানে ওই দুই কিশোরের দেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা। আর তারপরই এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায় । খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে তদন্তে যান মালদার ডিএসপি শ্যামল মন্ডল, পুরাতন মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা । কিন্তু এলাকায় বেআইনি মাদক বিক্রি, জুয়ার ঠেক বন্ধের দাবিতে পুলিশের সামনে গ্রামবাসীরা প্রতিবাদে সোচ্চার হোন এবং বিক্ষোভও দেখান। মাদক বিক্রেতা ও জুয়া কারবারীদের হাতে এই দুই কিশোর খুন হয়েছে বলে পুলিশের সামনে দাবি করেন স্থানীয় গ্রামবাসীরা।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত দুইজনের বয়স ১৮ থেকে ১৯ বছরের মধ্যে । তবে তাদের নাম ও পরিচয় জানা যায় নি । দুজনের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে এবং ভারী বস্তু দিয়ে আঘাত করা হয়েছে । মৃতদেহ দুটি একে অপরের থেকে ১০ মিটারের ব্যবধানে পড়েছিল। মৃতদের পাশ থেকে একটি চাকু উদ্ধার হয়েছে। গ্রামবাসীদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পেরেছে মৃতরা আশেপাশে এলাকার নয় । তবে তাদের নাম ও পরিচয় জানার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

পুরাতন মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা জানিয়েছেন , অল্প বয়সী দুই কিশোরের মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে । প্রাথমিক তদন্তে মনে করা হচ্ছে এটি একটি খুনের ঘটনা । তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পরই পরিষ্কারভাবে মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বলা যাবে। মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করার পর মালদা মেডিকেল কলেজের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এদিকে এই জোড়া খুনের ঘটনা নিয়ে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন গ্রামবাসীরা। স্থানীয় গ্রামবাসী অলক মাহাতো, সহদেব মন্ডল, বাসুদেব হালদারদের বক্তব্য, সাহাপুর এলাকার বেশ কিছু জায়গায় আম বাগানগুলোতে ব্যাপকহারে বেআইনি মদ বিক্রির কারবার চলছে। এর মধ্যে আবার জুয়ার আসর বসছে। এর আগেও পুলিশকে অভিযোগ জানানো হয়েছে। দুই মাদক কারবারিকে হাতেনাতে ধরে ও দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তারপরও অসাধু ব্যবসা বন্ধ হয় নি । হয়তো জুয়া বেআইনি মাদক কারবারীদের হাতেই এই দুইজন খুন হয়ে থাকতে পারে।

সাহাপুর গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য সুশান্ত কুন্ডু বলেন, এদিন সকালে জানতে পারি খুনের বিষয়টি। ডিস্কোমোড় এলাকার আমবাগানে দেখি অল্প বয়সী দুটি ছেলে দেহ রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। এই ঘটনার পিছনে আইপিএল ক্রিকেট খেলার বেটিং চক্র জড়িত থাকতে পারে । এছাড়াও মদ-গাঁজার কারবারীরা জড়িত রয়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে । এলাকায় এই ধরনের বেআইনি কাজকর্ম ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। জুয়ার ঠেক চলছে। কিন্তু পুলিশ সব জেনে বুঝেও প্রয়োজনীয় কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না । এজন্যই পুলিশের গাড়ির সামনে গ্রামবাসীরা এদিন বিক্ষোভ দেখিয়েছেন।

পুরাতন মালদা থানার আইসি শান্তিনাথ পাঁজা জানিয়েছেন, পুরো ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। মৃত দুই জনের নাম ও পরিচয় জানার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

ছবি —— পুরাতন মালদা থানার সাহাপুর এলাকায় জোড়া খুনের ঘটনায় তদন্তে পুলিশ।

দেশ ও এই সময়

24×7 NATIONAL NEWS PORTAL

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *